নবীনদের পদ না ছাড়া! বিদ্রোহ অনিবার্যই ছিল কংগ্রেসে!জ্যোতিরাদিত্যের কাউন্টার অ্যাটাক; দিশাহীন রাহুল!

0

সমাচার ডেস্ক: বহুদিন ধরে খবরে একটি বিষয় চর্চিত হচ্ছে যে শুভেন্দু অধিকারীর নাকি তৃণমূলের অন্দরে থেকেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর কারণে অনেকটা উপেক্ষিত হচ্ছেন। দলের অন্দরেই তার কর্মীরা দেখাচ্ছেন। হয়তো বাইরে আসছে না। তার কর্মীদের মধ্যে এমনই আনাগোনা শোনা যাচ্ছে। কিন্তু এর ফলাফল কেমন তা কংগ্রেসের হাত ছেড়ে বুঝতে পারল দিল্লি।

২০১৪ সালে কংগ্রেস ক্ষমতাচ্যূত হওয়ার পর লোকসভায় সিন্ধিয়াকে ডেপুটি লিডার করেছিলেন রাহুল গান্ধী। এমনকি মধ্যপ্রদেশে সরকার গঠনের পর কমলনাথকে গুরুত্ব দিলেও বিভিন্ন বিষয়ে জ্যোতিরাদিত্যকে আলোচনায় ডাকতেন রাহুল প্রিয়ঙ্কা।

তাঁকে উত্তরপ্রদেশে সংগঠনের পর্যবেক্ষকও করা হয়েছিল। সেই এখন কংগ্রেসের বিজেপিতে যুক্ত হতে ভারতের রাজ্য রাজনীতি শুরু হয়ে গেছে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু। রাহুল-প্রিয়াঙ্কা সোনিয়া যে বিষয়টি জানতেন না এমনটি নয়। অনেকদিন ধরেই দলে উপেক্ষিত হচ্ছে। তার ফলাফল কংগ্রেসকে। ভুগতে হচ্ছে।রাহুল বলেন, “কংগ্রেসের মধ্যে সম্ভবত জ্যোতিরাদিত্যই একমাত্র নেতা ছিলেন যিনি চাইলে যখন ইচ্ছা আমার বাড়িতে আসতে পারতেন”।