শোভনের চরিত্র কী তৃণমূলে ফিরলে বদলে যাবে? প্রশ্ন রত্নার

0

রাজীব ঘোষঃ- তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বেহালা-পূর্ব এলাকার যে দলীয় দায়িত্ব পেয়েছিলেন, সেই দায়িত্ব থেকে সরে গেলেন শোভন-পত্নী রত্না চট্টোপাধ্যায়।নবান্নে তৃণমূল সুপ্রিমো ও মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে শোভনের বান্ধবী বৈশাখীর বৈঠকের পরেই পরিস্থিতি বদলে গেল।যদিও রত্না বলছেন, তাকে দল থেকে কেউ সরে যেতে বলে নি।তিনি নিজেই দায়িত্ব ছেড়ে দিলেন।তার কথায়, এলাকার সমস্ত কাউন্সিলররা তার সঙ্গে কাজ করতে চাইছিলেন না।তাই অভিষেক বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়ের অফিসে গিয়ে রত্না দলীয় দায়িত্ব ছেড়ে দিয়ে এসেছেন।তার জায়গায় শোভন ঘনিষ্ঠ কাউন্সিলর সুশান্ত ঘোষকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এরপর রত্না বলেন, শোভন তৃণমূলে ফিরলেও দল তাকে মেয়র প্রোজেক্ট করবে না।তিনি আরও বলেন, তৃণমূলে ফিরলেই কী মানুষের চরিত্র বদলে যাবে?গত প্রায় তিন বছর ধরে বাংলার মানুষ শোভনকে যেভাবে দেখেছে,তার সেই ইমেজ কী তৃণমূলে ফিরলে রাতারাতি বদলে যাবে?দীর্ঘদিন ধরেই শোভনের রাজনৈতিক অবস্থান নিয়ে জল্পনা চলছিল।তার মধ্যে বৈশাখী মুখ‍্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করায় সেই জল্পনা আরও জোরালো মাত্রা পায়।

তখন থেকে মনে করা হচ্ছিল তবে কী গেরুয়া শিবির ছেড়ে শোভন তৃণমূলেই ফিরতে চলেছেন।তারপরেই রত্নার দলীয় দায়িত্ব থেকে অব‍্যাহতি থেকে মনে করা হচ্ছে শোভনের তৃণমূলে ফেরাটা হয়তো সময়ের অপেক্ষা।এখন লক্ষ্যনীয় বিষয় হলো শোভন শেষ পর্যন্ত কী করেন?কলকাতা পুরসভার নির্বাচনের আগে তৃণমূলে ফিরলে তার ভূমিকা কী ধরনের হয়।