“কোনও ধর্মনিরপেক্ষ সরকার কেন ধর্মীয় শিক্ষা দেবে?”বন্ধ হচ্ছে মাদ্রাসা ও টোল! যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত আসাম সরকারের

0

সমাচার ডেস্ক: শিক্ষা ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন ঘটাতে এবার আসাম সরকার নিল এক যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত। যেখানে সমস্ত মাদ্রাসাগুলোকে মিশিয়ে দেয়া হচ্ছে সাধারণ বিদ্যালয়গুলির নিয়ম পরিকাঠামোর সাথে।

পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন এবং স্কুল সার্ভিস কমিশন পৃথক পৃথক নিয়োগ প্রক্রিয়া চালায়। কিন্তু যেহেতু পরিকাঠামোগত অনেকটা ফারাক রয়েছে তাই সিদ্ধান্ত নিতেই অনেকটা সময় ব্যয় করতে হয়।

এমন ধরনের সমস্যা মুখোমুখি করতে হয় সমস্ত কর্মীদের। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে যদি এভাবেই এক ছাতার তলায় নিয়ে আসা হয় তবে এর সমাধান হয়তো সম্ভব হবে। কিন্তু এমনটা কবে হয় সেটাই এখন দেখার বিষয়।

হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেন, “কোনও ধর্মনিরপেক্ষ সরকার কেন ধর্মীয় শিক্ষা দেবে?”

অসমে ১২০০ মাদ্রাসা আছে। সেই সঙ্গে আছে ২০০ সংস্কৃত টোল। তাদের জন্য কোনও স্বাধীন বোর্ড নেই। এর ফলে নানা সমস্যা হচ্ছে। টোল বা মাদ্রাসা থেকে যারা পাশ করে বেরোচ্ছে, তাদের ম্যাট্রিকুলেশন বা হায়ার সেকেন্ডারি পাশের সমতুল্য সার্টিফিকেট দিতে হচ্ছে। সেজন্যই সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মাদ্রাসা ও টোলগুলিকে সাধারণ স্কুলে পরিণত করা হবে।”

২০১৭ সালে অসমের বিজেপি সরকার মাদ্রাসা ও টোল বোর্ডের অবলুপ্তি ঘটায়। দু’টি বোর্ডকে মিশিয়ে দেয় সেকেন্ডারি বোর্ড অব অসমের সঙ্গে।