‘অর্থমন্ত্রী বলেছেন যে তিনি পিঁয়াজ খান না। তাহলে তিনি কী খান? উনি কি অ্যাভোকাডো খান?’ : পি চিদম্বরম

0

ওয়েব ডেস্কঃ প্রসঙ্গত , দেশে ক্রমাগত বেড়ে চলেছে পিঁয়াজের দাম। ১২০-১৩০ রুপি থেকে বর্তমানে ১৫০-১৬০ রুপি হয়ে পিয়াজের দাম ডাবল সেঞ্চুরির পথে হাঁটছে। এটি চিন্তার বিষয় হয়েছে দাঁড়িয়েছে পেঁয়াজ ক্রেতাদের মধ্যে । পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি ও বিদেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি নিয়ে লোকসভায় জরুরি বৈঠক বসে । এই সময়ে অন্যরকম মন্তব্য করে বসেন নির্মলা সীতারমণ , পিঁয়াজের দাম বাড়ল কি কমলো সেটা নিয়ে ভাবেন না , কেননা তিনি এবং তার পরিবার খুব একটা পিয়াজ খান না । বুধবার এই নিয়ে ভরা সংসদে তার এমন মন্তব্য নতুন করে বিতর্কের সৃষ্টি করেছে। এ অবস্থায় খোঁচা মারার সুযোগ হাতছাড়া করলেন না সাবেক অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম।

বুধবার পেঁয়াজ মুল্যবৃদ্ধি নিয়ে বিরোধীদের প্রশ্নের মুখে লোকসভায় ভাষণ দিতে উঠেছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। মিশরসহ অন্যান্য দেশ থেকে পিয়াজ আমদানি নিয়ে তিনি কথা বলেন। তখন এনসিপি সাংসদ সুপ্রিয়া সুলে জানতে চান, কী এমন হল যে হঠাৎ উৎপাদন বন্ধ হয়ে গেল এবং বিদেশ থেকে আমদানি করতে হচ্ছে সরকারকে? আরেক সাংসদ এই কথা শুনে জিজ্ঞেস করেন, আপনি কি মিশরের পিয়াজ খান।

উত্তরে সীতারমণ বলেন, ‘চিন্তা করবেন না, আমি এমন একটা পরিবার থেকে এসেছি যেখানে পিঁয়াজ বা রসুন খাওয়া হয় না। তাই এটা নিয়ে আমার কোনও মাথাব্যথা নেই। ’ তার মন্তব্যকে সমর্থন করে পাশ থেকে আবার বিজেপি সাংসদরা বলে ওঠেন, ‘বেশি পিঁয়াজ খেলে মানুষ ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে। ’ কেউ আবার বলেন, ‘এমনিও পিঁয়াজ খেলে ক্যান্সার হয়ে যায়। ’ এরপর থেকে বিরোধীরা এই  কথা নিয়ে  নির্মলা সীতারমনকে আক্রমণ করতে শুরু করে ।

কংগ্রেস তাকে জনগণের সমস্যা নিয়ে উদাসীন বলে আখ্যা দেয়। কটাক্ষের তালিকায় এদিন সংসদে উপস্থিত হয়েই নাম লেখান কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ পি চিদম্বরম। তিনি বলেন, ‘অর্থমন্ত্রী বলেছেন যে তিনি পিয়াজ খান না। তাহলে তিনি কী খান? উনি কি অ্যাভোকাডো খান?’ খোঁচা মেরেছেন চিদম্বরম পুত্র কার্তিও।