দেশের আদালতে রয়েছে সাধারণ মানুষের আশা,বিচার ব্যবস্থার উন্নতিতে মোদির বার্তা!

0

সমাচার ডেস্কঃ প্রথম অল ইন্ডিয়া ডিস্ট্রিক্ট লিগ্যাল সার্ভিসেস অথরিটি সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আজ বিজ্ঞান ভবনে পৌঁছেছেন। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এনভি রমনও। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর ভাষণও দেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, এই সময়টা আমাদের স্বাধীনতার অমৃতের সময়। এই সময় সেইসব সংকল্পের যা আগামী ২৫ বছরে দেশকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাবে। দেশের এই অমৃত যাত্রায় ব্যবসা করার সহজতা এবং জীবনযাত্রার সহজতা সমান গুরুত্বপূর্ণ।

পিএম মোদি আরও বলেছিলেন যে কোনও সমাজের জন্য বিচার ব্যবস্থায় অ্যাক্সেস যতটা গুরুত্বপূর্ণ, ন্যায়বিচার সরবরাহ ব্যবস্থাও সমান গুরুত্বপূর্ণ। বিচার বিভাগীয় অবকাঠামোও এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। গত আট বছরে দেশের বিচার বিভাগীয় অবকাঠামোকে শক্তিশালী করার জন্য দ্রুত গতিতে কাজ করা হয়েছে। এর আধুনিকায়নে ৯০০০ কোটি টাকা ব্যয় করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেছেন যে ই-কোর্ট মিশনের অধীনে দেশে ভার্চুয়াল আদালত চালু করা হচ্ছে। ট্রাফিক আইন লঙ্ঘনের মতো অপরাধের জন্য ২৪ ঘন্টার আদালত কাজ শুরু করেছে। জনগণের সুবিধার্থে আদালতে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের পরিকাঠামোও বাড়ানো হচ্ছে।

মোদি বলেছেন যে ন্যায়বিচারের এই বিশ্বাস প্রতিটি দেশবাসীকে উপলব্ধি করে যে দেশের ব্যবস্থা তার অধিকার রক্ষা করছে। এই চিন্তা থেকেই দেশটি জাতীয় আইনি সেবা কর্তৃপক্ষও প্রতিষ্ঠা করে। যাতে দুর্বলের মধ্যে দুর্বলও ন্যায়ের অধিকার পায়।

তিনি জানান, যে একজন সাধারণ নাগরিককে সংবিধানে তার অধিকার সম্পর্কে সচেতন হওয়া উচিত, তার কর্তব্য সম্পর্কে সচেতন হওয়া উচিত। তাকে তার সংবিধান, এবং সাংবিধানিক কাঠামো, নিয়ম এবং সমাধান সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। প্রযুক্তি এক্ষেত্রেও বড় ভূমিকা রাখতে পারে।তিনি বলেছেন যে দেশের বিচারাধীন বন্দীদের সম্পর্কিত মানবিক ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্ট অতীতে বহুবার সংবেদনশীলতা দেখিয়েছে। কত বন্দি আছে যারা বছরের পর বছর ধরে আইনি সহায়তার অপেক্ষায় জেলে আছে। আমাদের জেলা আইনি পরিষেবা কর্তৃপক্ষ এই বন্দীদের আইনি সহায়তা প্রদানের দায়িত্ব নিতে পারে।