“রাম রাজ্য” প্রতিষ্ঠার বেগতিক দেখে “কংগ্রেস মুখে জয় শ্রী রাম ” দশকের পর দশক নীরব ছিল সোনিয়া কংগ্রেস! 

0

সমাচার ডেস্ক: এবার রনদিপ সিং সূর্যবালা রাম মন্দির প্রতিষ্ঠা নিয়ে দিলেন তার বক্তব্য। বললেন “জয় শ্রীরাম” কিন্তু কংগ্রেস এতদিন যাবৎ নীরব কেন ছিল? কেন রাম মন্দির কে নিয়ে একটি ইট গাথার প্রশ্ন তোলেনি? তাদের রাজত্বকাল? এই নিয়ে রাজনৈতিক মহলে প্রশ্ন দানা বাঁধছে । তার সাথে থেকে যাচ্ছে এই ঐতিহাসিক দিন যে সাক্ষী দেখার জন্য আয়োজন। ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী পৌঁছে গিয়েছেন।

রাম মন্দির প্রতিষ্ঠা কবে হবে তা নিয়ে কোনো সদুত্তর ছিল না কংগ্রেসের কাছে। বিগত কয়েক দশক শতক কেটে গেছে রাম মন্দির ইতিহাস কে ঘিরে। কিন্তু কোনো সুরাহা হয় নি। কোন এক মঞ্চ সব পক্ষ কে আনতে পারেনি। সোনিয়া কংগ্রেস বারবার সেই প্রতিধ্বনি উঠলেও তা কিন্তু ঘুরে ফিরে এসেছে পুনরায় জনতার দিকে।

কিন্তু মোদি জমানায় সুদিন দেখল ভারতবাসী। এরপরেও মামলা করে রাম মন্দির নির্মাণের দিনক্ষণ কে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে ফেলে কংগ্রেস! কিন্তু সব দিকে বেগতিক দেখে এবার প্রিয়াঙ্কার মুখে রাম নাম.।

কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়ঙ্কা গাঁধীদিলেন ঐক্যের বার্তা। শতাধিক মানুষকে নিয়ে অযোধ্যায় যে মহা আয়োজন হয়েছে, তার বিরোধিতা করা তো দূর, বরং অযোধ্যা রামমন্দিরের ভূমিপুজোর অনুষ্ঠান রাষ্ট্রীয় ঐক্য, সৌভ্রাতৃত্ব এবং সাংস্কৃতিক মেলবন্ধনের প্রতীক হয়ে উঠুক বলে বার্তা দিলেন তিনি। তবে হঠাৎ কেন তার মুখে এমন ধরনের কথা উঠে আসলো তা নিয়ে প্রশ্ন জাগছে রাজনৈতিক মহলে।

তবে কি এর পিছনে রয়েছে অন্য কোন সমীকরণ? যাই হোক সেই উত্তর সময় দেবে। তিনি বলেন, ‘‘রাম নামের সারকথাই হল সরলতা, সাহস, সংযম, ত্যাগ এবং প্রতিশ্রুতি। সকলের মধ্যেই রাম রয়েছেন, রাম রয়েছেন সকলের সঙ্গে।’’