ভারতে করোনা সংক্রমণ কমানোর একমাত্র সমাধান সোশ্যাল ডিসটেন্সিং, দাবি আইসিএমআরের

0

রাজীব ঘোষঃ-সম্প্রতি একটি গবেষণা করেছেন আইসিএমআরের বিশেষজ্ঞরা।সেখানে তারা বলছেন সোশ্যাল ডিসটেন্সিং একমাত্র সমাধান।সামাজিক জমায়েত থেকে নিজেকে আলাদা করে রাখলে তবেই ভারতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের পরিমাণ প্রায় ৬২ শতাংশ কমানো যাবে।তারা বলছেন, কোয়ারান্টাইন প্রক্রিয়া ও সোশ্যাল ডিসটেন্সিংকে গুরুত্ব দিয়ে পালন করলে করোনার সংক্রমণ ৬২ শতাংশ কমানো সম্ভব হবে।যারা ইতিমধ্যে কোভিড১৯-এ আক্রান্ত বা যাদের মধ্যে এই রোগের উপসর্গ দেখা যাচ্ছে তাদের থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।কিন্তু যেহেতু এই রোগে কেউ আক্রান্ত কি না সহজে বোঝা যায় না, তাই সোশ্যাল ডিসটেন্সিং প্রয়োজন বলে জানান তারা।

কোভিড১৯-কে গ্লোবাল প‍্যানডেমিক ঘোষণা করার আগের সপ্তাহে গবেষণা করা হয়।গবেষণার কেন্দ্রে ভারতের চারটি শহর দিল্লী, মুম্বাই, বেঙ্গালুরু ও কলকাতাকে বেছে নেওয়া হয়।কারণ এই চারটি শহরে আন্তর্জাতিক অ্যারাইভাল হয়।বিশেষজ্ঞদের মতে, শুধু আক্রান্তরা নন।যাদের মধ্যে উপসর্গ দেখা যাচ্ছে তাদের ৫০ শতাংশকে যদি কোয়ারান্টাইনে রাখা যায় এবং স্ক্রিনিং করা যায় তাহলে ভারতে ৬২ শতাংশ কম হবে করোনার সংক্রমণ।

সোশ্যাল ডিসটেন্সিং-এর মাধ্যমে মহামারীর দাপট কমবে।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা(WHO) প্রথম থেকেই সোশ্যাল ডিসটেন্সিং বা সামাজিক ভাবে নিজেকে আইসোলেট করার উপরে গুরুত্ব দিয়ে আসছে।বিশেষজ্ঞরা বারবার জানিয়েছেন, নোভেল করোনা ভাইরাস রুখতে সবচেয়ে বড় সমাধান সোশ্যাল ডিসটেন্সিং।এর দ্বিতীয় কোনো দাওয়াই নেই।