শহীদদের প্রতি শোকবার্তা চীনা অ্যাপে শেয়ার করেন মোদী, অভিযোগ অভিষেকের

0

রাজীব ঘোষঃ- প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কয়েকদিন আগে পর্যন্ত লাদাখ সীমান্তে শহীদদের প্রতি শোক বার্তা এইসব চীনা অ্যাপে শেয়ার করেছিলেন। এখন সেই অ্যাপটি নিষিদ্ধ ঘোষণা করলেন তিনি। এটা সরকারের দ্বিচারিতা ছাড়া আর কিছুই নয়। টুইটারে লিখেছেন তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রসঙ্গত, চীনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল স্ট্রাইক শুরু করেছে মোদি সরকার। 59 টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রের পক্ষ থেকে দেশবাসীর উদ্দেশ্যে এই 59 টি চিনা অ্যাপ মোবাইল থেকে ডিলিট করার জন্য জানানো হয়েছে। এরমধ্যে টিকটক, উইচ্যাট এর মত জনপ্রিয় অ্যাপ রয়েছে।

কেন্দ্রের তরফে অভিযোগ, চীন এইসব অ্যাপ থেকে ভারতীয়দের তথ্য চুরি করছে। চীনকে জবাব দেওয়ার ক্ষেত্রে মোদি সরকারের পাশে থাকার বার্তা দিয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু মোদির এই সিদ্ধান্ত তৃণমূল মেনে নিতে পারেনি। তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় টুইটারে লেখেন, চীনে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক না চালিয়ে মোদি সরকার ডিজিটাল স্ট্রাইক করার চেষ্টা করছেন। কারো ব্যক্তিগত মোবাইল থেকে এভাবে কোন অ্যাপ বন্ধ করা যায় না। এটা বিজেপির উগ্রজাতীয়তাবাদ ছাড়া আর কিছু নয়।

তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি এবং সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেছেন, করোনা মোকাবিলায় পিএম কেয়ারস ফান্ডে একাধিক চীনা সংস্থা অনুদান দিয়েছে। ভারতকে চীনের ওপর নির্ভরশীলতা থেকে বের না করে ডিজিটাল স্ট্রাইক করছেন মোদি। কেন্দ্রের উচিত ছিল সীমান্তে চীনকে যোগ্য জবাব দেওয়া। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সিদ্ধান্তকে উগ্রজাতীয়তাবাদ বলে আক্রমণ করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।