সংস্কৃত অনার্সের ছাত্রী JMB জঙ্গি, মেয়ের শাস্তি চাই বললেন মা গীতা দেবী

0

সমাচার ডেস্ক:অভাবের সংসারে মেয়েকে মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক ও কলেজ পাশ করিয়েছিলেন বাবা-মা।ভাবতেও পারেননি সেই মেয়েই কিনা জঙ্গি হয়ে উঠবে বড় হয়ে। সংস্কৃত অনার্সের ছাত্রী জঙ্গী হয়ে উঠলেন অবশেষে।সংস্কৃতের ছাত্রী সেই মেয়ে এখন কিনা JMB র জঙ্গি, মা জানালেন তিনি মেয়ের ইসলাম ধর্ম গ্রহণের কথা জানলেও মেয়ের জঙ্গী হয়ে ওঠার কথা ঘুনাক্ষরেও টের পাননি।

শনিবার প্রজ্ঞা দেবনাথ ওরফে আয়েশা জন্নত মোহনা ধরা পড়েন পুলিশের হাতে। তাদের আদরের মেয়ে জঙ্গি এটা জানার পরে গীতা দেবী বললেন -মেয়ে যদি অপরাধ করে থাকে, তাহলে অবশ্যই মেয়ের শাস্তি চাই।

হুগলির ধনেখালির বাসিন্দা হলেন গীতা দেবী। গীতা দেবীর স্বামী প্রদীপ বাবু পেশায় দিন মজুর। কখনও স্বামীর কাজ থাকে কখনও স্বামীর কাজ থাকে না।অভাবের সংসার টানার জন্য স্ত্রী সেলাইও করেছেন।

কিন্তু ২০১৬ সালের ২৪ সেপ্টেম্বরের কলকাতায় কাজ আছে বলে মেয়ে বেরিয়ে যায় এরপর মেয়ের আর দেখা মেলেনি। এরপর বেশ কয়েকদিন পর ফোন করে মেয়ে বাড়িতে জানায় যে সে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে। এরপর থেকে মেয়ের সাথে আর যোগাযোগ ছিল না গীতা দেবীর।

প্রতিবেশীরা জানান কলেজে পড়াকালীন ই প্রজ্ঞার হাবভাব বদলে গিয়েছিল। তবে প্রজ্ঞা যে জঙ্গি বিভাগের নাম লিখিয়েছে তা তারা কল্পনাও করতে পারেননি। অপরিচিতদের সাথে প্রায়ই মেলামেশা করতে দেখা যেত তাকে। পাড়া প্রতিবেশীরা এ নিয়ে বেশ কয়েকবার আপত্তিও জানিয়েছিলেন।

এরপরই ধনেখালি কলেজে তৃতীয় বর্ষে পড়ার সময় বাড়ি ছাড়ে সে। তারপর আর তার কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। এতদিনে সেই মেয়ের খোঁজ মিলল। গত শনিবার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেছে। অভাবী সংসার এর মেয়ে এখন জঙ্গি। পুলিশ বলছেন- ISIS-এর ভাবধারাতে উদ্বুদ্ধ হয়েই নব্য জেএমবির মহিলা শাখার পরিচালনার দায়িত্বে ছিল তার ওপর।