মমতা বলেছেন জিতে এসো, আমি জিতব

0

বিনোদন ডেস্কঃ-লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস দলের প্রার্থী ঘোষণার পর থেকে পশ্চিমবঙ্গে জমে উঠেছে ভোটের প্রচার।  তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায় অন্যতম চমক বাংলা সিনেমার অভিনেত্রী নুসরাত জাহান। উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হয়েছেন নুসরাত।


ভোটের প্রচারে নামার আগে আজ বৃহস্পতিবার উত্তর ২৪ পরগনা জেলার মধ্যমগ্রামে তৃণমূলের জেলা কার্যালয়ে গিয়ে নুসরাত জানালেন, এবারের লোকসভা ভোটে তাঁর নাম ঘোষণা করার পর তৃণমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁকে বলেছেন, ‘যাও, জিতে এসো।’


নুসরাত বলেন, ‘সারাজীবন বাড়িতে, কাজের জায়গায় অনেক দায়িত্ব সামলে চলেছি। তাই আশা করি, মানুষকে সেবা করার এই দায়িত্বটাও সঠিকভাবে সামলাতে পারব।’তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণার পর থেকেই নুসরাতকে নিয়ে বিক্ষিপ্ত কিছু অশ্লীল আক্রমণ এরই মধ্যে শুরু হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চলছে নানা বিতর্ক। তাই নিয়ে নুসরাত স্পষ্ট জবাব দিলেন, ‘যাঁরা এই ধরনের মিম বানাচ্ছে, তাঁদের জীবনে শিক্ষা ও সংস্কৃতির অভাব আছে। নিজেদের বাড়ির নারীদের যখন এভাবে নোংরা আক্রমণ তাঁরা করেন না, তখন এভাবে একজন নারী প্রার্থীকে আক্রমণের কী মানে? আসলে, এঁরা ভদ্রতা, সভ্যতার সীমা অতিক্রম করে যাচ্ছেন।’


সিনেমাতে হিট-ফ্লপের যেমন ভয় থাকে, রাজনীতিতেও তেমন ভয় আছে বলেই মনে করেন নুসরাত। এ নায়িকা বলেন, ‘মানুষ আজ পর্যন্ত আমাকে ভালোবাসা দিয়ে এই জায়গায় পৌঁছে দিয়েছেন। আশা করি, আমার এই পর্যায়েও মানুষ ভালোবাসায় ভরিয়ে দেবেন।’


লোকসভা ভোটের মাধ্যমে জীবনের এক নতুন ইনিংস শুরু হচ্ছে নুসরাতের। সেই প্রসঙ্গে নুসরাত বলেন, ‘আমি যখন অভিনয় করতে এসেছিলাম, ইন্ডাস্ট্রিতে একেবারে নতুন ছিলাম। লড়াই করে নিজের জায়গা করেছি। সিনেমাতেও লড়াইটা কঠিন ছিল। সেই লড়াইয়ে হারিনি। এখানেও আমি নতুন। কিন্তু জানি, মানুষের ভালোবাসায় নিজের জায়গা তৈরি করে নিতে পারব। আমি এই লড়াইয়েও হারব না।’

Advertisement