‘কোয়ার্টারে ফিরে ফোন করার কথা ছিল’ বাড়ি ফিরছে মণিপুর হামলায় শহীদ শ্যামল দাসের মরদেহ

0

সমাচার ডেস্ক: কথা ছিল কোয়াটারে ফিরে ফোন করবে কিন্তু কল আর আসেনি। শনিবার সকালে স্ত্রীর সঙ্গে এমন টাই কথা হয়েছিল ৪৬ অসম রাইফেলসের জওয়ান শ্যামল দাসের। মণিপুরের চূড়াচন্দ্রপুরে জঙ্গি হামলায় মৃত্যু হয়েছে মুর্শিদাবাদের খড়গ্রামের কীর্তিপুরের গ্রামের ছেলে শ্যামলের। মৃত্যুর খবর বাড়িতে পৌঁছাতে বারবার জ্ঞান হারাচ্ছেন তার স্ত্রী সুপর্ণা। এমনকি গতকাল সকালেই স্বামীর সঙ্গে শেষ কথা হয়েছিল তাঁর। আট বছর একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে। ইতিমধ্যেই শোকস্তব্ধ হয়ে পড়েছে পুরো গ্রাম।

আপনাদের জানিয়ে রাখি ২০০৯ সালের নভেম্বরের অসম রাইফেলস এ যোগ দিয়েছিলেন মুর্শিদাবাদের খড়গ্রামের শ্যামল দাস। পরিবারের একমাত্র রোজগেরে সদস্য ছিলেন তিনি। কিন্তু তিনি আজ আর নেই। তবে দুর্গাপুজোর আগে শেষ গ্রামে ফিরেছিলেন তবে পঞ্চমীর দিন আবার ফিরে গিয়েছিলেন। কিন্তু পরিবারকে বলে গিয়েছিলেন যে নবান্নে ফিরবেন। সামনে নবান্ন কিন্তু তার আগেই এই সব কিছু ঘটে গেলো।

খবর অনুযায়ী,কলকাতা বিমানবন্দরে মরদেহ নিয়ে আসা হবে তারপর সেখান থেকে খড়গ্রামের কীর্তিপুরে আনা হবে দেহ।নিজ গ্রামেই পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।

ফারদিন মায়ানমার সীমান্তে কাছে চূড়াচন্দ্রপুর জেলায় ৪৬ অসম রাইফেলসের কনভয়ে হামলা চালানো হয়। সেখানেই শহীদ হয়েছেন শ্যামল দাস-সহ চার জওয়ান। এই হামলায় মৃত্যু হয় কর্নেল ত্রিপাঠীর স্ত্রী এবং ছেলেরও। ইতিমধ্যেই সেই ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।