জেনে নিন নগ্ন হয়ে ঘুমানোর উপকারিতা

0

সচরাচর সবাই সাধারণ পোশাক-পরিধান করে ঘুমোয়। অনেকেই আরার বাহারি নাইট সুটও ‌ব্যবহার করে থাকে । অনেকে তো অন্তর্বাসটিকে‌ওত্যগ করে না ঘুমের সময়। ফুল স্পিডে পাখা চালিয়ে, কম্বোলের তলায় ঘা ঘেঁষাঘেঁষি করে ঘুমিয়ে পড়ে । আবার অনেকেরই ইচ্ছা থাকে পোশাক ছাড়া ঘুমোনোর, কিন্তুু কেউ যদি দেখে ফেলে বা জেনে যায়, সেই লজ্জায় আর সপ্নের মত ঘুমোনো হয়ে ওঠে না।

“পোশাক পরিহিত” ঘুমের চেয়ে, “নগ্ন ঘুম” এর গুন অনেক বেশি । অনেক স্বাস্থ্যকর। এমনটাই মত বিশেষজ্ঞদের । নগ্ন ঘুমের কী কী উপকারিতা চটপট জেনে নিন ।

১)গোপনাঙ্গে সংক্রমণ রোগ আটকায়:-
দিনরাত ঢেকে রাখার কারণে গোপন অঙ্গগুলিতে
উষ্ণতার মাত্রা বেড়ে যায় ফলে জীবাণুরা সবচেয়ে বেশি আক্রমণ করে ওখানেই। জীবাণুরা বেড়েও ওঠে পুরো মাত্রায়। তাই রাতে ঘুমের সময় খোলা রাখা চাই গোপনাঙ্গ। ৭-৮ ঘণ্টা বাতাস খেললে, জীবাণুর আক্রমণ রিতিমত কমে যাবে ।

২)আকর্ষণীয় শরীর প্রয়োজন নগ্ন ঘুম:-
ঘুমানোর সময় শরীরে কাপড় থাকলে মেলাটোনিন ও গ্রোথ হরমোনগুলির নিঃসরন অনেক কমে যায় । এরফলে সময়ের অনেক আগেই বয়সের রেখা ফুটে ওঠে। তাই যৌবন ধরে রাখতে রাতে ঘুমানোর সময় পোশাক ত্যাগ করুন।

৩)নগ্ন ঘুম, সতেজ ঘুম:-
পোশাক না পরে ঘুমোলে অনেক খোলামেলা অনুভূতি হয়। ঘুমটা জমিয়ে উপভোগ করা যায়। সকালে উঠতেই সতেজতায় ভরে ওঠে শরীর ও মন।

৪) অলসতা কাটায় নগ্ন ঘুম:-
নিয়মিত নগ্ন ঘুমের ফলে মানুষ অনেক বেশি প্রোডাক্টিভ হয়ে ওঠে, অলসতার লেশ মাত্র থেকে না ।

৫)ভুঁড়ি কমান নগ্ন ঘুমে:-
নগ্ন ঘুমে কর্টিসলের মতো স্ট্রেস হরমোনগুলি কম পরিমাণে নিঃসরিত হয়। পুরো দিন শরীর সতেজ থাকে, ফলে মেদ জমতে পারে না। বরং জমে থাকা চর্বি কমাতে সাহায্য করে।

৬)নগ্ন ঘুম বাড়ায় যৌনসুখ:-
কাপলদের ক্ষেত্রে নগ্ন ঘুম যাদুর মতো কাজ করে। পরস্পরের প্রতি আকর্ষণ অনেক বেড়ে যায়। অক্সিটোসিন হরমোনের নিঃসরণ হয় বেশি। যৌনতাকে অন্য মাত্রায় পৌঁছে দেয় এই হরমোন। আগের চেয়ে অনেকবেশি যৌনসুখ উপভোগ করা যায়। অতৃপ্তি থাকে না কোনো।