প্রাণভিক্ষার আর্জি করতে নারাজ কুলভূষণ যাদব দাবি পাক সরকারের, ইসলামাবাদকে দাঁতভাঙ্গা জবাব দিল ভারত

0

সমাচার ডেস্ক: 2016 সালের মার্চে পাকিস্তান সরকারের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন কুলভূষণ যাদব। পাকিস্তান সরকার তার বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ আনেন। আর সেই অভিযোগেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। অপরদিকে ভারত সরকার চরবৃত্তির এই অভিযোগ সম্পূর্ণরূপে খারিজ করে দেন।এর ঠিক এক বছর পর পাকসেনা আদালত কুলভূষণ যাদবের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন।ভারত সরকার

2017 সালের এপ্রিল মাসে আন্তর্জাতিক আদালতে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে এবং এর ফলস্বরূপ পরের মাসে কুলভূষণ যাদবের শাস্তি স্থগিত হয়ে যায়।

নৌসেনা থেকে অবসরের পর ইরানে ব্যবসা করতেন তিনি। কিন্তু পাকিস্তানের তরফ থেকে দাবি করা হয়েছিল যে কুলভূষণ যাদব কে বেলুচিস্তান থেকে গ্রেপ্তার করা হয়, ভারত এর তরফ থেকে বলা হয়েছিল যে তাকে ইরান থেকে অপহরণ করা হয়েছে।

সম্প্রতি পাকিস্তান সরকার জানিয়েছেন যে কুলভূষণ যাদব কে দেওয়া মৃত্যুদণ্ডের রায় পুনর্বিবেচনা করতে চাননা কুলভূষণ। কুলভূষণ প্রাণভিক্ষার আর্জি করতেও রাজি নন বলে জানিয়েছেন পাক সরকার।

ভারত সরকার এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন যে- বিচারের নামে প্রহসন করে কুলভূষণ যাদব কে ফাঁসির সাজা দেওয়া হলো। তিনি পাকিস্তান সেনা বাহিনীর হেফাজতে রয়েছেন গত চার বছর ধরে‌। তার মামলার পূনর্বিবেচনার আর্জি যাতে তিনি না জানান তার জন্য কুলভূষণ যাদব কে জোর করা ও হচ্ছে।”

বিদেশ মন্ত্রকের তরফ থেকে আরও বলা হয় যে-“ভীষণ তড়িঘড়ি ভাবে তার অধ্যাদেশের আওতায় যথাযথ সুরক্ষা আটকানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। পাকিস্তান আবশ্যিকভাবেই কুলভূষণ যাদব কে আন্তর্জাতিক আদালতের রায় কার্যকর করার অধিকার থেকে বঞ্চিত করার চেষ্টা করে চলেছে।”