জেল পুলিশের পরীক্ষায় গ্রেপ্তার তিন ভুয়া পরীক্ষার্থী

হক জাফর ইমাম, মালদা:জেল পুলিশের পরীক্ষায় গ্রেপ্তার তিন ভুয়া পরীক্ষার্থী। ধৃতদের মধ্যে দুইজন ভিন রাজ্যের বাসিন্দা ও একজন মালদা জেলার বাসিন্দা। ঘটনাটি ঘটেছে মালদা জেলার পুরাতন মালদা ব্লকের সাহাপুর হাইস্কুলে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে মালদা থানার পুলিশ।জানা গিয়েছে ধৃত তিন জনের নাম চন্দ্র প্রকাশ (২৬) বাড়ি বিহারের হাতিয়াড়া ঔরঙ্গাবাদ এলাকায়। শচীন কুমার সিং(২৫), বাড়ি বিহারের ছাপড়া ও জগদীশ সরকার (৩১), বাড়ি মালদা জেলার নালাগোলা এলাকায়। ধৃত চন্দ্র প্রকাশ রবিবার পশ্চিমবঙ্গ জেল পুলিশের পরীক্ষা দিতে পুরাতন মালদা এলাকার সাহাপুর হাইস্কুলে আসে।

পরীক্ষা শুরুর আগে অ্যাডমিট চেকিং এর সময় দেখা যায় অ্যাডমিটের সাথে তার কোন মিল নেই। এর ওপর যথেষ্ট গরমিল রয়েছে অ্যাডমিট। সন্দেহ হলে একজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে। এরপর বাকি দুইজনের নাম উঠে আসে। রবিবার রাত্রে পুলিশ গোপন সুত্রে খবর পেয়ে মালদা টাউন স্টেশন থেকে দুইজনকে গ্রেফতার করে। মূল পান্ডা চন্দ্র প্রকাশ জানান, তারা রাজ্যের যে কোনো সরকারি পরীক্ষা শুরু হলে এজেন্ট মারফত পরীক্ষার্থীদের খুঁজে বেড়ান। এক একজন পরীক্ষার্থী পিছু ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা ধার্য করা হয়। যার বিনিময়ে ওই পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা দেবে এজেন্ট দের লোক। সেই কারণে বিহারের আরেক বাসিন্দা শচীন কুমার সিংকে এজেন্ট করে তারা দীর্ঘদিন ধরে এই ধরনের কাজ করে আসছে। সেইমতো পশ্চিমবঙ্গের পুলিশের পরীক্ষার দিনক্ষণ ঘোষণা হতেই এজেন্ট শচীন কুমার সিং মালদায় ওই সমস্ত পরীক্ষার্থীদের খোঁজ শুরু করে । সেইমতো পরিচয় হয় নালাগোলা বাসিন্দা জগদীশ সরকারের সঙ্গে। সেখানকার বেশকিছু পরীক্ষার্থী পরীক্ষা দেওয়ার জন্য এদিন তারা মালদার বিভিন্ন পরীক্ষা কেন্দ্রে যায়। স্বাভাবিকভাবে পশ্চিমবঙ্গ জেল পুলিশের পরীক্ষায় এই ধরনের ভুয়া পরীক্ষার্থী গ্রেপ্তার হওয়ায় মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে জেলা প্রশাসনের।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে ধৃতদের পুলিশি হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এদের সঙ্গে আর কারা এদিনর পরীক্ষায় বসেছিল। পাশাপাশি এদের মূল পান্ডাকে তারা আর কোন কোন পরীক্ষায় বসেছিল সমস্তটাই তদন্ত করছে মালদা থানার পুলিশ।