আমেরিকা থেকে ড্রোন নিচ্ছে ভারত,চীনের গতিবিধির ওপর নজর রাখতে

0

সমাচার ডেস্ক: ভারত ও চীনের মধ্যে সীমান্ত নিয়ে দ্বন্দ্বের কথা আমরা কম বেশি সবাই জানি। আর এর মধ্যেই একাধিকবার গুলিবর্ষণ হয়েছে দুই সেনার মধ্যে।এরই মধ্যে চিনের থেকে একধাপ এগোতে ভারত অ্যাকশন মোডে৷ চিনের কর্মপদ্ধতির ওপর নজর রাখতে ভারত এবার আমেরিকার থেকে ৩০ টি MQ-9B কিনছে।

MQ-9B এর ফলে ভারত চীনের ছোটো বড়ো পদক্ষেপ এর ওপর নজর রাখতে পারবে।দ্রুতই রাজনাথ সিংয়ের নেতৃত্বেধীন রক্ষা পরিষদের কাছের এর বিস্তারিত বিবরণ পেশ করা হবে৷ এর ছাড়া ভারত নিজেদের হাতে থাকা ইজরায়েল হেরন-র স্যাটেলাইট কমিউনিকেশন ডিভাইসকেও মজবুত করছে৷

আসলে চিনের সঙ্গে সীমান্ত উত্তেজনার মধ্যেই ভারত নিজের প্রতিরক্ষা বিভাগে প্রচুর নতুন সমরাস্ত্র কিনছে পাশাপাশি সুরক্ষা ব্যবস্থা নিশ্ছিদ্র করতে আরও অনেক অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ডিভাইসও কিনছে৷ সর্বভারতীয় সংবাদ সংস্থা -র মতে ২২,০০০ কোটি টাকার ডিল হতে চলেছে ৯ রিপার ড্রোনের৷ প্রাথমিকভাবে ৬ টি ড্রোন প্রথমে আসবে৷ পরে আসবে বাকি ২৪টি ড্রোন৷ যা আগামী ৩ বছর ধরে ডেলিভারি হবে৷

এই ড্রোনের বৈশিষ্ট্য

>>MQ-9 রিপার ড্রোন সবচেয়ে বেষি ৪৪৪.৫ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টায় উড়তে পারে৷ এটা ৫০ হাজার ফিট উঅচু অবধি উড়তে পারে৷

>>MQ-9 একসঙ্গে ১২টি মুভিং টার্গেটকে ট্র্যাক করতে পারে৷এটা  একটা মিসাইল ছাড়ার ০.৩২ সেকেন্ডের মধ্যে দ্বিতীয় মিসাইল ছাড়তে পারে৷

>> ড্রোন বানানো কোম্পানিজেনারেল অ্যাটোমিক্সে- র দাবি এই ড্রোন একবারে ২৭ ঘণ্টা অবধি উড়তে পারে৷

>>এই ড্রোন মোট ১,৭৪৬ কিলো ওজন বহন করতে পারে৷

>>এই ড্রোনে ফল্ট টলারেট ফ্লাইট কন্ট্রোল সিস্টেম আর ট্রিপল রিডন্টেন্ট অ্যাবিয়োনিক্স সিস্টেমে কাজ করে৷

>>এটা মডিউলার ড্রোন৷ এতে সহজেই পেলোডস কনফিগার করা যায়৷ এটা রিয়েল টাইমে পৃথিবীর যে কোনও প্রান্তে ডেটা পাঠাতে পারে৷

>>ইলেক্ট্রো অপ্টিক্যাল ইনফ্রারেড (EO/IR), সার্ভিউল্যান্স র‍্যাডার, মাল্টিমোড মৈরিটাম সার্ভিলান্স র‍্যাডার, ইলেকট্রনিক্স সাপোর্ট মেজর্স মতো বিষয়ে সক্ষম৷ এটা লেজর বোম পরিবহন করতে সক্ষম৷