এসপিকে চড় মারতে পিছপা হব না, বিস্ফোরক সৌমিত্র

0

রাজীব ঘোষঃ– উত্তর ২৪ পরগনার পুলিশ সুপার যদি মনে করেন আমার গাড়ি আটকাবেন তাহলে এসপি কে চড় মারতে পিছপা হব না। কড়া ভাষায় আক্রমণ করে বলেন বিজেপির যুব মোর্চার সভাপতি এবং সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। তিনি আরো বলেন, তৃণমূল কংগ্রেসে থাকাকালীন তোলা শিল্প, সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে ছিলাম। তখন তৃণমূল থেকে বলে দেওয়া হয়েছিল দল করলে এই সমস্ত জিনিস মেনে নিতে হবে। তার প্রতিবাদ করায় আমাকে এত মামলা দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সাংসদ সৌমিত্র খাঁ যখন লোকসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন তার বিরুদ্ধে মামলা থাকার কারণে তিনি নির্বাচনী প্রচারে অংশগ্রহণ করতে পারেননি। তার হয়ে সম্পূর্ণ নির্বাচনী প্রচার কর্মসূচী করেছিলেন তার স্ত্রী সহ দলীয় কর্মীরা। বিজেপির রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতি হওয়ার পর বারাসাতে ভারতীয় জনতা পার্টির পক্ষ থেকে সাংসদ সৌমিত্র খাঁ কে সংবর্ধনা দেওয়ার জন্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানেই বিজেপির সাংসদ এবং রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ এই বিস্ফোরক মন্তব্য করেন। তারপর তিনি গাইঘাটা থানার উদ্দেশ্যে চলে যান।

সেখানে বিজেপির পঞ্চায়েত সদস্য সহ তিন জনকে পুলিশ আটক করায় সেখানে গিয়ে তিনি বিক্ষোভ অবস্থানে বসেন। তার এই বক্তব্য প্রসঙ্গে বারাসাতে তৃণমূল নেতা সুনীল মুখোপাধ্যায় বলেন, তার এই উশৃংখল আচরণের জন্য তৃণমূলে থাকতে পারেননি।বিজেপিতে গিয়েও সেই কাজ করছেন। পুলিশের উচিত সাংসদের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত ভাবে মামলা রুজু করা। এই বিষয়ে বারাসাত জেলার পুলিশ সুপার অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, কোনো রাজনৈতিক নেতার বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া দেবো না।

সৌমিত্র খাঁ তৃণমূলের জেলা সভাপতি এবং মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক কেও আক্রমণ করেন। সেই বিষয়ে তৃণমূলের প্রতিক্রিয়া, করোনা পরিস্থিতির কারণে ওকে কিছু বলা হয়নি। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের বিরুদ্ধে আক্রমণ করলে মানুষ তার যোগ্য জবাব দেবে। সাংসদ সৌমিত্র খাঁ বিজেপি রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করার পরেই তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে জোরালো আক্রমণ শুরু করেছেন।