কীভাবে নম্বর দেওয়া হবে উচ্চমাধ্যমিকের বাতিল হওয়া পরীক্ষার, জানিয়ে দিল উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা পর্ষদ

0

সমাচার ডেস্ক: দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে চিনের করোনা ভাইরাস।তাই করোনা ভাইরাস রুখতে দেশজুড়ে লকডাউন।স্থগিত হয়ে গিয়েছিল উচ্চমাধ্যমিকের তিনটি পরীক্ষা। সেই পরীক্ষাগুলিই জুলাই মাসে নেওয়ার কথা ভেবেছিল রাজ্য সরকার। কিন্তু গতকাল শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় পরিষ্কার করে জানিয়ে দেন স্থগিত হয়ে যাওয়া তিনটি পরীক্ষাই বাতিল করা হল।

এবং এই বাতিল হওয়া পরীক্ষার নম্বর কী ভাবে দেওয়া হবে তা উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ আলোচনা করেছে। এরপর সেদিন রাতে অর্থাৎ শুক্রবার সংসদের তরফে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। সেই বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী ছাত্র বা ছাত্রী যে লিখিত পরীক্ষাগুলি দিয়েছে তার মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বরকেই বাতিল পরীক্ষার নম্বর হিসাবে ধরা হবে।

যেমন : কোন ছাত্র বা ছাত্রী তার লিখিত পরীক্ষাগুলির মধ্যে সর্বোচ্চ ৯০ পেয়ে থাকে । তাহলে বাতিল হওয়া বিষয়ের পরীক্ষাগুলিতেও তাকে ৯০ই করে দেওয়া হবে।

তবে কোন ছাত্র ছাত্রী যদি মনে করে বাতিল বিষয়ে আরও ভালো নম্বর পাবে তাহলে নিজের ইস্কুলের কাছে আবেদন করতে হবে। করোনা পরিস্থিতি ঠিক হলে তাদের আবার পরিক্ষা নেওয়া হবে। তবে এই পদ্ধতিতে সামান্য আপত্তি অভিভাবকের।

তাঁদের মতে, পরীক্ষার ফলাফল বেরনোর পরই অনলাইনে ভরতি প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে কলেজে। ছাত্রছাত্রীকে এখন বাতিল পরীক্ষা মূল্যায়নের ভিত্তিতে কলেজে ভরতি হতে হবে। যখন লিখিত পরীক্ষা দিয়ে ভাল নম্বর পাবে , তখন ভাল কলেজে ভরতির সুযোগ মিলবে না। তবে আগামী জুলাই মাসেই উচ্চমাধ্যমিকের ফলপ্রকাশ হতে পারে।