গুন্ডামি, হিংস্রতা, বর্বর আক্রমণ! অতিষ্ঠ সাধারণ মানুষ। রাষ্ট্রপতি শাসনের পথে বাংলা? প্রশ্ন রাহুলের

0

সমাচার ডেস্ক:তিন দিন হয়ে গেল। লোকসভা ও রাজ্যসভায় নাগরিকপঞ্জি বিল পাস হওয়ার পর তা আইন ও রূপান্তরিত হয়ে গেছে। রাষ্ট্রপতি তাতে স্বাক্ষর করে দিয়েছেন। দেশের জনগণের পাঠানো সমস্ত প্রতিনিধিরা সেখানে বিরোধিতা করেছে এবং আইনানুগভাবে তা পাস হয়েছে। কিন্তু প্রশ্ন অন্য জায়গায়।

যেখানে সাধারন মানুষের টাকায় সমস্ত সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করে চলেছে এক শ্রেণীর মানুষ তারা কি সত্যিই ভারতের ভালো চায়? নাকি ভারতের তারা শুধু নিজের ক্ষমতার প্রকাশ করতে চায়? যার জন্য একাধিক ট্রেনে আগুন। দূরপাল্লার ট্রেন বন্ধ রাখতে হয়েছে। যার জন্য অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি জ্বলছে আগুন রাস্তায় অবরোধ স্থানীয় মানুষদের হয়রানি। অসুস্থ মানুষরা নাজেহাল। পরীক্ষার্থীরা যেতে পারছে না পরীক্ষা দিতে। এমন পরিস্থিতি বঙ্গ আগে দেখেনি।

কিন্তু এই পরিস্থিতির উল্লেখ করতে গিয়ে অনেকে গুজরাটের সেই গোধরা উল্লেখ করছেন। যার জন্য আজও সেই কালো দাগ রয়েছে। কিন্তু সেই কালো দাগ এখন পড়বেকি? সেই নিয়েই প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই । তবে বুদ্ধিজীবীদের অনেকাংশ এখনো পথে নামেনি কেন? তারা নিশ্চুপ! এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে রাহুল সিনহা বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের এই অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতির জন্য দায়ী তৃণমূল কংগ্রেস। এটা যদি চলতেই থাকে তাহলে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা ছাড়া আর কোন উপায় থাকবে না।’