বিয়ের চাপে বাড়ি ছেড়েছিলেন ৭ বছর আগে, আজ সরকারি অফিসার!

0

সমাচার ডেস্ক: জেদ্ আর আত্মবিশ্বাস থাকলে কোন কিছুই অসম্ভব নয় আবারো প্রমাণ করে দিল মিরাটের সঞ্জু রানি ভর্মা । নিজের স্বপ্ন পূরণ করতে নিজের পরিবারকে ছাড়তে দ্বিধাবোধ করেননি।২০১৩ -এ বাড়ি ছেড়েছিলেন৷ কারণ তাঁর ওপর ছিল বিয়ের মারাত্মক চাপ৷ বাড়ির মেয়ে বড় হয়েছে, এবার বিয়ে দিতেই হবে, পরিবারের এই মানসিকতার সঙ্গে একমত হতে পারেননি৷ তাই ছেড়েছিলেন বাড়ি৷ সেই মেয়েই সরকারি উচ্চপদস্থ আধিকারিক হয়ে ৭ বছর পর যখন বাড়ি ফিরলেন, তখন মেয়ের জেদের সম্মান করতে বাধ্য হলেন পরিবারের সকলে৷

সঞ্জু রানি ভর্মা যখন বাড়ি ছেরেছিল তখন বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাকত্তর করছিলেন।মিরাটের আরজি ডিগ্রি কলেজ থেকে স্নাতক হয়ে তিনি তখন দিল্লিতে নিজের স্বপ্ন পূরণের জন্য পৌঁছেছিলেন।তবে ২০১৩ সালে সঞ্জু রানি ভর্মার মা মারা যান৷ তার কিছু পর থেকেই বাড়ির মেয়ের বিয়ে নিয়ে শুরু হয় চাপাচাপি।তখনই নিজের স্বপ্ন পূরণ করার জন্য  তিনি কঠিন সিদ্ধান্ত নেন।

সঞ্জুর কথায়, ২০১৩-এ আমি বাড়ি ছাড়ি৷ তখন আমি স্নাতোকত্তর করছিলাম৷ আমার হাতে ছিল না তেমন টাকা পয়সা৷ বাড়ি ছেড়ে এসে একটা ছোট্ট ঘর ভাড়া নিয়েছিলাম৷ ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের পড়াতাম৷ একটা বেসরকারি স্কুলে চাকরিও নিয়েছিলাম৷ তার সঙ্গে সিভিল সার্ভিস পরীক্ষার জন্য তৈরি হতে থাকি৷

এখন তিনি সরকারি আধিকারিক৷ তবে আরও বড় পদে যেতে চান সঞ্জু৷ তিনি UPSC পরীক্ষা পাস করে হতে চান জেলা শাসক৷ যদিও নিজের পরিবার তাকে স্বপ্নপূরণে সাহায্য করেননি, তবুও পরিবারকে আর্থিক ভাবে সাহায্য করতে চান তিনি৷ দেশের এমন মহিলারা অনেকে জন্য অনুপ্ররণা হয়ে উঠেছেন৷ ধন্য সঞ্জু রানি ভর্মা!