ভক্তের ভগবানঃ চরম সঙ্কটের মুখে মানব সমাজ,মহা জাগ্রত “জয় মা তারা”র অশেষ কৃপা রক্ষা করবে

0

সমাচার ডেস্ক: মায়ের পাগল ছেলে তারাপীঠে সাধক বামাক্ষ্যাপা রূপে সিদ্ধিলাভ করেছিলেন৷ বামাক্ষ্যাপা রক্ত বস্ত্র ধারণ করেছিলেন মায়ের আদেশেই৷ অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িয়ে আছে তারাপীঠ বাঙালির কৃষ্টি বা সংস্কৃতির সঙ্গে৷তারা হিন্দু দেবী কালীর একটি বিশিষ্ট রূপ। ইনি দশমহাবিদ্যার দ্বিতীয় মহাবিদ্যা। কালীর মতোই তারা ভীষণা দেবী।

তারার বিভিন্ন রূপান্তর উগ্রতারা, নীল সরস্বতী অথবা একজটা তারা, কুরুকুল্লা তারা, খদির বাহিনী তারা, মহাশ্রী তারা, বশ্যতারা, সিতাতারা, ষড়ভূজ সিতাতারা, মহামায়া বিজয়বাহিনী তারা ইত্যাদি। বৌদ্ধধর্মেও তারাদেবীরপূজা প্রচলিত। তারার মূর্তিকল্পনা কালী অপেক্ষাও প্রাচীনতর।কোনো কোনো মতে তারা দুর্গা বা চণ্ডীররূপান্তর। পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলার তারাপীঠেঅবস্থিত দেবী তারার মন্দির বিখ্যাত।তিনি দেবী পার্বতীর এক উগ্র রূপ।

মা তারার এই রূপ বর্তমান পরিস্থিতিতে সকলের মঙ্গল করবে এই কামনা করে তার ভক্তবৃন্দ রা। কারণ মায়ের অসীম কৃপা যদি বর্ষিত হয় তবেই একমাত্র বিশ্বের এই ভয়াবহতা থেকে রক্ষা পাবে মানবসমাজ। ইতিহাস পৌরানিক সমস্ত কাহিনী তাই প্রমাণ দিয়েছে বারবার এমনই বিশ্বাস মানুষের মনে।