সুশান্তের মৃত্যু খুন নাকি আত্মহত্যা তা নিশ্চিতভাবে জানাবে ফরেনসিক রিপোর্ট : CBI

0

সমাচার ডেস্ক: সুশান্তের মৃত্যুর পর প্রায় তিন মাস কেটে গেছে।আজ অব্দি এর কোনো নির্দিষ্ট সির্ধান্তে পৌঁছতে পারেনি।মুম্বাই পুলিশ এই মৃত্যুকে আত্মহত্যার ঘটনা বলে উরিয়ে দিলেও ,সুশান্তের ভক্তরা কিন্তু মেনে নিতে পারছিলো না,তারা চাইছিলো cbi তদন্ত ।এর পর সুশান্তের বাবার লিখিত অভিযোগে পরে শুরু হয় তদন্ত।

এবারে সুশান্তের মৃত্যুর রহস্য আমরা সবাই জানবো বলে আশা করছি,আর তাতে কোনো সন্দেহ থাকবে না আত্মহত্যা নাকি খুন।টাইমস নাওয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে সেই রিপোর্টে কোনও সন্দেহের অবকাশ থাকবে না। সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তের জন্য এইমসের ফরেসনিক বিভাগের প্রধান সুধীর গুপ্তার নেতৃত্বে চার সদস্যের একটি মেডিক্যাল টিম গঠন করেছিল সিবিআই। তাঁরাই সুশান্তের মৃত্যু সুইসাইড না হোমিসাইড তা নিয়ে চূড়ান্ত রায় দেবে।

সুশান্ত আত্মহত্যা করেছেন নাকি এই মৃত্যুতে কোনও ফাউল প্লে রয়েছে তা আগামী কয়েকদিনেই পরিষ্কার হয়ে যাবে।জানা যাচ্ছে আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর ফরেসনিক টিম একটি বৈঠক রয়েছে। আর এই বৈঠকে সব কিছু জানা যাবে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

আমরা মহারাষ্ট্র থেকে সুশান্ত কেসের বিভিন্ন নথিপত্র পেয়েছি, রিপোর্ট আসতে কয়েকদিন সময় লাগবে। কিছু কাগজ মরাঠিতে রয়েছে সেগুলো অনুবাদ করতে হবে। মেডিক্যাল বোর্ডের ১৭ তারিখ একটি বৈঠক রয়েছে এবং তারপরেই রিপোর্ট সামনে আসবে। সুশান্ত মামলার তদন্ত যুক্ত সকল এজেন্সির সঙ্গে একটি বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে, যাতে ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে চূড়ান্ত ফরেনসিক রিপোর্ট ও মত জমা দেওয়া যায়’, জানালেন সুশান্তের ভিসেরা রিপোর্ট তৈরিতে নিযুক্ত এক চিকিত্সক।

সুশান্তের ভিসেরা রিপোর্টে পরীক্ষা করা হবে অ্যাম্ফিটামিনস, ক্যানাবিস, ওপিয়ডস, কোকেন, হিরোইনের মতো নিষিদ্ধ মাদকের উপস্থিতি সুশান্তের শরীরে ছিল কিনা।ভিসেরা হল শরীরের ভিতরের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের নমুনা যা মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখতে পরীক্ষা করে থাকেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা। শরীরের ভিতর কোনও বিষ কিংবা ড্রাগস ছিল কিনা তা নিশ্চিত করে এই রিপোর্ট।