৪৫ বছর পর প্রথম মধ্যেরাতে ভারত ও চীনের সেনার মধ্যে ফায়ারিং

0

সমাচার ডেস্ক:৪৫ বছর পর ভারত চীন সীমান্ত লাদাখে চললো গুলি।অরুণাচল প্রদেশে ১৯৭৫ সালে শেষবার ভারত-চিন সীমান্তে গুলি চলেছিল।গত তিনমাস ধরে সংঘর্ষের পরিবেশ সৃষ্টি হয় ভারত ও চিন সেনার মধ্যে।

সূত্রের খবর অনুযায়ী ,চীনের সৈন্য দলকে অগ্রসর হতে দেখে ভারতীয় সেনারা গুলি চালায় চিনা সেনার ওপর।যদিও ভারতের দেওয়া এই মতকে অস্বীকার করেছেন চিন সরকার।চীনাদের দাবি টহলদারির সময় দুই বাহিনী মুখোমুখি হয়। তখনই গুলি চালায় ভারতীয় সেনা। পাল্টা জবাব দিতে ব্যাবস্থা নেওয়া হয়।

এই বিষয় নিয়ে ভারতীয় সরকার কোনো  মন্তব্য না করলেও,চিনা প্রতিরক্ষামন্ত্রককে উদ্ধৃত করে সেদেশের সরকারি সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমসের দাবি, ভারত প্যাংগং লেকের দক্ষিণ প্রান্তে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করে। চিনের প্যাট্রলিং দল যখন কথা বলার জন্য এগোচ্ছিল, সেই সময় ভারত ফায়ারিং করে। চিন তখন জবাবি ফায়ারিং করে।

কিছুদিন আগেই ভারতীয় সেনারা চীনাদের কাছ থেকে এক গুরুত্বপূর্ণ শৃঙ্গ নিজেদের দখলে নিয়ে আসে ।গতমাসে, চিনা ফৌজ একাধিকবার লাদাখের চুলসুল এলাকায় প্যাংগং লেকের দক্ষিণ তটের কাছ দিয়ে ভারতীয় ভূখণ্ডে অনুপ্রবেশ করার চেষ্টা চালিয়েছে। কিন্তু, প্রতিবার, ভারতীয় সেনার প্রতিরোধে তাদের সেই অপচেষ্টা প্রতিহত হয়েছে।

গত এপ্রিল -মে মাস থেকে ভারত চীন সীমান্তে সংঘর্ষে জড়িয়েছে উভয় সেনারা ।ভারতিয়দের দাবি চীনারা একাধিক বার প্রবেশ করার চেষ্টা করলেও ভারতীয় সেনার প্রতিরোধে সেটা বিফল হয়েছে।

পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ হয়ে ওঠে জুন মাসে। গালওয়ানে চিনা সেনার বর্বরোচিত আক্রমণে প্রাণ হারান ২০ ভারতীয় জওয়ান। ভারতের পাল্টা মারে ৪০ জন চিনা সেনাকর্মী হতাহত হয়।তারপর থেকে পরিস্থিতি চরম উত্তেজনাপূর্ণ হয়ে রয়েছে। একাধিকবার সামরিক পর্যায়ে বৈঠক হলেও, কোনও সুষ্ঠু সমাধান বের হয়নি।