উত্তরপ্রদেশে একটি দ্ররিদ পরিবারের বিদ্যুত বিল এলো ১২৮ কোটি টাকা । বিলের আঙ্ক দেখে মাথায় হাত এক বৃদ্ধা ব্যক্তি শামীমের । এর আগে শামিমের বিদ্যুতের বিল আসতো সাতশো থেকে আটশো টাকা। কিন্তু এতে টাকা কিভাবে জমা দেবে সেই বৃদ্ধা । বিল জমা না দেওয়ায় কোনও রকম তদন্ত না করেই শামিমের বাড়ির লাইন কেটে দেওয়া হয়েছে। শামিম ও তাঁর স্ত্রীর দাবি, তাঁরা গরিব। তাঁদের ঘরে খালি আলো আর পাখা চলে। কী হিসেবে এই অবাস্তব বিল আসতে পারে।  বিদ্যুৎ বিভাগের এই ইঙ্গিনিয়ার জানিয়েছেন টেকনিক্যাল ত্রুটির জন্যই এই বিল এসেছে। পুরনো একটি বিল নিয়ে এলে টাকার অঙ্ক ঠিক করে দেওয়া হবে তাঁর দাবি।