নিকাশি নালার বেহাল দশা, বর্ষা শুরু হতেই পৌর এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ড জলমগ্ন

0

পল মৈত্র,দক্ষিন দিনাজপুরঃ বর্ষা আসতেই জল জমছে বুনিয়াদপুর পৌরসভার একাধিক এলাকায়, নিকাশি নালার বেহাল দশায় কার্যত এমন হচ্ছে আর তার জেরেই নাজেহাল এলাকাবাসী । যদিও এই সমস্যার সমাধানে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যান জয়ন্ত কুণ্ডু । ২০১৭ সালে শিবপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিস্তীর্ণ এলাকা নিয়ে বুনিয়াদ পৌরসভা গঠন হয় ।

সেইসময় বন্যায় প্লাবিত হয়েছিল ওই এলাকা । বন্যা পরিস্থিতি পরিদর্শন করেন চেয়ারম্যান অখিল বর্মণ । তারপরে অতিক্রান্ত তিনবছর । কিন্তু এখনও এই পৌরসভার অধিকাংশ ওয়ার্ডেই নেই উপযুক্ত নিকাশিনালা । ফলে বর্ষা আসতেই বিভিন্ন এলাকায় জমতে শুরু করেছে জল । আর তাতেই আতঙ্কিত এলাকার লোকজন । বুনিয়াদপুর পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা গোবিন্দ তালুকদার বলেন, ২০১৭ সালের বন্যার পর থেকেই আমরা কষ্টে আছি । কারণ ২০১৮ সালে সরকারি হাইড্রেনগুলি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে । তার উপর এখন রাস্তার ধারে দোকান হওয়ায় হাইড্রেনগুলি বন্ধ হয়ে গেছে । প্রশাসন থেকে আজ পর্যন্ত কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি । আমাদের ওয়ার্ডেই থাকেন বুনিয়াদপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান অখিল বর্মণ । কিন্তু তিনি কোনওরকম পদক্ষেপ নেন না ।” বুনিয়াদপুর পৌরসভার আরও এক বাসিন্দা গোপা সরকার জানান, ২০১৭ থেকে এই সমস্যা হচ্ছে । রাস্তা ও বাড়িতে জল জমছে । বহুবার প্রশাসনকে জানিয়েও কোনও কাজ হয়নি । ৪ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জয়ন্ত কুণ্ডু নিজে এসে পরিস্থিতি দেখে গেছেন । তারপরেও কোনও ব্য়বস্থা নেওয়া হয়নি । এলাকায় জল জমে যাওয়ায় মশা, মাছি সহ সাপের উপদ্রপ হচ্ছে । রাতে জলের জন্য চলাফেরা করতে ভয় লাগছে । “বুনিয়াদপুর পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যান জয়ন্ত কুণ্ডুকে এবিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হয় । তিনি বলেন, বুনিয়াদপুরে ৫১২ নম্বর রাজ্য সড়ক হওয়ার কারণে আমরা হাইড্রেন করতে পারছি না । তারপর জলনিকাশির জন্য এলাকার মানুষের সহায়তার প্রয়োজন । যাদের এলাকা দিয়ে আমরা জলটা বের করব তারা যদি অনুমতি না দেয় তাহলে আমরা কিছুই করতে পারব না । তবে, আমরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব জল বের করে দেওয়ার ব্যবস্থা করছি ।