কাঙ্খিত পে-কমিশন ও ল্যান্ডার বিক্রম কি একই রকম সাফল্যের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে? নাকি আরো বাঁধা আছে?

অমিত সরকার:বেতন কমিশনের হিসাব বলছে, যদি কোনও সরকারি কর্মীর বেতন যদি ১০০ টাকা ধরা হয়, তাহলে তার উপর ১২৫ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা মিলবে৷ অর্থাৎ দু’টি মিলিয়ে ২২৫ টাকা হবে৷ আর কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী ওই ২২৫ টাকার ওপর আরও ১৪.২ শতাংশ হারে বাড়বে মূল বেতন৷ ফলে, মূল বেতন দাঁড়াবে ২৫৭ টাকার কাছাকাছি৷ বেতন মূল বেতন যদি বাড়ে, সেক্ষেত্রে হাউস রেন্ট অ্যালাউন্স অনেকটাই বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকছে৷ যদিও হাউস রেন্ট কত হবে তা মুখ্যমন্ত্রীর নিজের দায়িত্বে রেখেছেন৷ জানিয়েছেন, তিনি তা পরে জানিয়ে দেবেন৷

 সরকারের বছরে ১০ হাজার কোটি টাকা অতিরিক্ত খরচ হবে বলেও জানা গিয়েছে৷ তার ওপর সরকারি কোষাগারে অর্থের অভাব।

 তবে, স্যাটের নির্দেশ অনুযায়ী ষষ্ঠ বেতন কমিশন চালুর আগে বকেয়া মহার্ঘ ভাতা মিটিয়ে দিতে হবে৷

কেন্দ্রের হারে দিতে হবে মহার্ঘ ভাতা৷ আদেও কি প্রস্তুত?তবে, বেতন কমিশন কার্যকর করা আগে যদি রাজ্য সরকার মহার্ঘ ভাতা মামলার স্যাটের নির্দেশ চ্যালেঞ্জ জানায়, তাহলে কী হবে? এই নিয়েও শুরু হয়েছে জল্পনা৷