আজি Voter ID Verification করুন নাহলে সমস্যায় পড়তে পারেন! জেনে নিন যেভাবে বাড়ি বসে Verification করবেন

ভারতীয় নির্বাচন কমিশন ভোটারের তথ্য যাচাই করণ প্রক্রিয়া শুরু করেছে ১লা সেপ্টেম্বর থেকে। যা আগামী ১৫ই অক্টোবর পর্যন্ত চলবে। কোথাও না গিয়ে নিজের স্মার্টফোন থেকে আপনি ও এই প্রোসেস টি সম্পূর্ণ করতে পারবেন শুধুমাত্র একটি মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে। যে আপটি ‘Voter Helpline’ নামে গুগল প্লে স্টোর এবং অ্যাপেল অ্যাপ স্টোর এ পাবলিশ করা রেখেছে।

চলুন এবার ধাপে ধাপে জেনে নেওয়া যাক গুরুত্বপূর্ণ এই প্রসেস গুলি

১) ইনস্টল করার পর অ্যাপটি একটি ডিসক্লেইমার দেখাবে ‘Agree’-তে টিক দিয়ে ‘Next’ ক্লিক করে আপনাকে সম্মতি দিতে হবে ।

২) এর পরের স্ক্রিনে ‘EVP’ নামে একটি ট্যাব রয়েছে, যেখানে ক্লিক করলে ‘ELECTORAL VERIFICATION PROGRAM’-‌ শুরু হবে।

৩) এই স্কিনের নিচের দিকে ‘Continue’ অপসন ক্লিক করতে হবে আপনার মোবাইল নম্বর আপনার ভোটার কার্ড এর সাথে যুক্ত করার জন্য। এখানে লোকেশনের অ্যাকসেস চাইবে অ্যাপ টি যেটি আপনাকে Allow করতে হবে।

৪) নতুন স্ক্রীনে বৈধ মোবাইল নম্বর দেওয়ার পর ‘SEND OTP’ তে ক্লীক করলে কিছুক্ষনের মধ্যে আপনার মোবাইলে একটি ওটিপি আসবে। নির্দিষ্ট স্থানে ‘OTP’ টাইপ করে লগইন করে লগইন করুন পরবর্তী ধাপে যাওয়ার জন্য।

৫) এবার এপিক নাম্বার দিয়ে আপনার ভোটার তথ্য খুঁজুন।

৬)আপনার ভোটার তথ্য খুঁজে পাওয়ার পর ‘its me’ অপশনে ক্লিক করুন।

৭) এরপর ‘YES’ অপশনে ক্লিক করলে আপনার এপিক নাম্বারের সাথে মোবাইল নাম্বার সংযুক্ত হয়ে যাবে।

৮) মোবাইল নম্বর সংযুক্ত হওয়ার পর আপনি আপনার নাম, বাবার নাম, জন্মতারিখ, ছবি পরিবর্তন করতে পারবেন।

৯) কোনো তথ্যপরিবর্তন করলে ‘MODIFY’ অপশনে ক্লিক করে সাপোর্টেড ডকুমেন্ট আপলোড করুন।

১০) এরপর “GPS” এর মাধ্যমে আপনার ঠিকানা কারেন্ট লোকেশনের ঠিকানা ইলেকশন কমিশন দপ্তরের সিস্টেমে পৌঁছে যাবে । “GPS” এর কারনে আপনাকে অবশ্যই নিজের স্থায়ী বাসস্থানে উপস্থিত থেকে প্রসেস টি সম্পূর্ণ করতে হবে।

১১) ঠিকানা সঠিক প্রমাণ করার জন্য আপনাকে একটি উপযুক্ত ডকুমেন্ট আপলোড করতে হবে ।

আপনার সমস্ত প্রসেস সঠিক হলে কিছুক্ষনের মধ্যেই ভেরিফিকেশন হয়ে যাবে।

১২) প্রসেস টি সম্পূর্ণ হওয়ার পর একি ভাবে আপনি আপনার পরিবারের অন্য সদস্যদেরও যুক্ত করতে পারবেন ।

১৪) এই অ্যাপের মাধ্যমেই পরিবারের কোনো নতুন সদস্যদের ভোটার কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন।