হিন্দু বলে পশ্চিমবংগে আশ্রয় নিতে হয়ে দেবেশ রায়কে , মুসলিম বলে পশ্চিমবঙ্গ ছাড়তে হয় আনিসুজ্জামানকে : তাসলিমা

0

সমাচার ডেস্কঃ- তিনি বাংলা থেকে বিতাড়িত হয়েছিলেন। তিনি বাংলাদেশ থেকে বিতাড়িত হয়েছিলেন। তিনি আর কেউ নন। তাসলিমা নাসরিন। দুই নক্ষত্র পতনের বেদনাহত কিছুটা ক্ষোভ কিছুটা কিছুটা দুঃখ কিছুটা স্মৃতি। তিনি শেয়ার করলেন সোশ্যাল মিডিয়ার নেট পাড়াতে।

তিনি বলেন-” দেশভাগের শিকার ছিলেন দুজনেই। আনিসুজ্জামানের জন্মস্থান বসিরহাট, পশ্চিমবংগ। দেবেশ রায়ের জন্ম পূর্ববংগের পাবনায়। দেবেশ রায়কে পূর্ববংগ ছেড়ে পশ্চিমবংগে আশ্রয় নিতে হয়েছিল। তিনি হিন্দু বলে। আনিসুজ্জামানকে পশ্চিমবংগ ছেড়ে পূর্ববংগে চলে যেতে হয়েছিল। তিনি মুসলমান বলে। দুজনই তাঁদের মুক্তচিন্তা, মননশীলতা,উদারনীতি, রাজনৈতিক আদর্শ, সর্বোপরি তাঁদের উপন্যাস এবং প্রবন্ধের জন্য শ্রদ্ধা, সম্মান, পুরস্কার প্রচুর পেয়েছেন।” তিনি আরো বলেন-” সম্ভবত যা চেয়েছিলেন সবই পেয়েছেন, অথবা তার চেয়ে বেশিই পেয়েছেন।

প্রায় একই বয়সে দুজন দু’দেশ থেকে চিরকালের জন্য বিদেয় নিয়েছেন গতকাল। যথেষ্ট বয়স হয়েছিল। যা দেওয়ার ছিল, দিয়েছেন। সবচেয়ে বড় কথা, সার্থক জীবন ছিল তাঁদের। সে কারণে আমি তাঁদের মৃত্যুতে দুঃখ করছি না। ” তিনি সহানুভুতির সাথে সেই বিষয়টিকে হয়তো মেনে নিয়েছেন ঠিকই কিন্তু মানতে পারেননি স্মৃতির পাতা।

তিনি জানান- ” আমি তাঁদের মৃত্যুতে দুঃখ করি, জীবনে যাঁদের সুখ স্বস্তি সহানুভূতি সমর্থন প্রাপ্য ছিল, কিন্তু পাননি। যাঁরা প্রতিভাবান হয়েও, মুক্তচিন্তক হয়েও, মননশীল হয়েও বঞ্চিত, লাঞ্ছিত, উপেক্ষিত, অপমানিত, অবহেলিত রয়ে গেছেন সারা জীবন। যাঁরা কেবল ঠকেছেন, কেবল দুঃখ পেয়েছেন,কেবল দুঃখই পেয়েছেন, তাঁদের জন্য আমি অশ্রুপাত করি।”