কংগ্রেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী চিঠি লিখে ,রাষ্ট্রপতির কাছে চেয়ে নিলেন ক্ষমা , কি ভুল করেছিলেন অধির !

0

সমাচার ডেস্কঃ কংগ্রেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী তার বিতর্কিত বক্তব্যের জন্য রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর কাছে লিখিতভাবে ক্ষমা চেয়েছেন। তিনি রাষ্ট্রপতিকে চিঠি লিখে তার জিহ্বা পিছলে যাওয়ার ভুল ক্ষমা করতে বলেছেন। তারা একসাথে আশ্বস্ত করেছে যে এটি একটি মৌখিক ভুল ছিল।

চৌধুরী (অধীর চৌধুরী)চিঠিতে লিখেছেন, ‘আপনার অবস্থা বর্ণনা করতে ভুল করে ভুল শব্দ ব্যবহার করার জন্য আমি দুঃখিত। আমি আপনাকে আশ্বস্ত করছি এটি জিভের একটি স্লিপ ছিল। আমি ক্ষমাপ্রার্থী এবং আপনাকে এটি গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করছি।

উল্লেখ্য, এর আগের দিন সংসদে এ নিয়ে তোলপাড় হয়। বিজেপি নেত্রী স্মৃতি ইরানিও কংগ্রেস সভাপতিকে প্রশ্ন তোলেন এবং দলের কাছেও ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানান। স্মৃতি ইরানি কংগ্রেস সভাপতিকে বলেছিলেন, সোনিয়া গান্ধী, আপনি দ্রৌপদী মুর্মুর অপমান অনুমোদন করেছেন। সর্বোচ্চ সাংবিধানিক পদে একজন নারীকে অপমান করার অনুমোদন দিয়েছেন সোনিয়াজি।এটি উল্লেখযোগ্য যে অধীর রঞ্জন চৌধুরী বুধবার একটি বেসরকারি চ্যানেলের একটি অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মুর্মুকে ‘জাতীয় স্ত্রী’ বলে সম্বোধন করেছিলেন। এরপরই অধীর রঞ্জনকে ঘিরে বিজেপি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি বলেছেন, “দ্রৌপদী মুর্মুকে জাতির স্ত্রী বলে সম্বোধন করা ভারতের প্রতিটি মূল্যবোধ ও সংস্কৃতির বিরুদ্ধে। এই ভাষণটি সেই সর্বোচ্চ সাংবিধানিক পদের মর্যাদায় আঘাত করছে জেনে, একজন পুরুষ কংগ্রেস নেতা এই জঘন্য কাজ করেছেন।

এই ক্ষেত্রে, অধীর রঞ্জন চৌধুরীও আগের দিন রাষ্ট্রপতি মুর্মুর কাছে ক্ষমা চাইবেন বলে বিবৃতি দিয়েছিলেন। কিন্তু এই ভন্ডদের কাছে ক্ষমা চাইব না। অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেন, ভারতের রাষ্ট্রপতি আমাদের জন্য রাষ্ট্রপতি। আমার মুখ দিয়ে একটা কথা বের হল। জিভ পড়ে গেল। কিন্তু বিজেপি সরিষার পাহাড় বানাচ্ছে।একই সঙ্গে এই বিতর্ক নিয়ে অধীর রঞ্জন চৌধুরী বিজেপিকে নিশানা করে বলেন, আমি রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাইতে সময় চেয়েছি।