অভিভাবকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ সিবিএসই স্কুল প্রধানদের, চিঠি মমতাকে

0

রাজীব ঘোষঃ- কলকাতা এবং বিভিন্ন জেলার 100 টি সিবিএসই স্কুলের অধ্যক্ষরা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে চিঠি লিখেছেন। সেই চিঠির প্রতিলিপি স্কুল শিক্ষা দপ্তরে পাঠানো হয়েছে। চিঠিতে অধ্যক্ষরা জানিয়েছেন, 70 শতাংশের বেশি অভিভাবক স্কুল ফি দিচ্ছেন না। তার ফলে স্কুলগুলি গভীর আর্থিক সংকটের মধ্যে পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে তারা স্কুল শিক্ষক এবং শিক্ষা কর্মীদের বেতন দিতে পারবেন না। হয়তো স্কুল বন্ধ করে দিতে হবে।

চিঠিতে আরও জানানো হয়েছে, তারা স্কুল ফি এই বছরে বাড়াননি অথচ অভিভাবকরা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে যাচ্ছেন এবং এপ্রিল মাস থেকে স্কুল ফি আটকে রেখেছেন। তারা বিভিন্ন ধরনের ছাড় দাবি করছেন। যার জন্য স্কুলগুলো অর্থ সংকটে পড়েছে। অভিভাবকরা যাতে এই পরিস্থিতি উপলব্ধি করতে পারেন এবং স্কুল ফি মিটিয়ে দিতে এগিয়ে আসেন তার জন্য রাজ্যের হস্তক্ষেপ দরকার। প্রসঙ্গত, কলকাতা সহ বিভিন্ন জেলা স্কুলগুলিতে ফি বাড়ানো কে কেন্দ্র করে বেশ কিছুদিন ধরেই অভিবাবকরা বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন। সেই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই বছর স্কুল ফি না বাড়ানোর জন্য আবেদন করেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে সিবিএসই স্কুল প্রধান দের এই চিঠি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

চিঠিতে আরো বলা হয়েছে, ফি মকুব করার মত নির্দেশ অনুসরণ করতে স্কুল গুলিকে বাধ্য করা উচিত নয়। ফি মকুব করা হলে স্কুল চালানো যাবে না। অভিভাবকেরা হাতে প্ল্যাকার্ড নিয়ে স্লোগান দিতে দিতে স্কুলের দিকে মিছিল করে আসছেন। স্কুলের গেটের বাইরে আক্রমণাত্মক বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। তারপর সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় উঠছে। স্কুলের পক্ষে প্রচন্ড মানসিক যন্ত্রণার সৃষ্টি হচ্ছে।

কোনোভাবেই স্কুল ফি বাড়ানো হয়নি অথচ তারা ফি মকুব করার দাবি জানাচ্ছেন। এই ফি না দেওয়ার বিষয়টি সোশ্যাল মিডিয়াতে তুলে ধরা হচ্ছে এবং একে সমর্থন করাটা একটা প্রবনতা হয়ে দাঁড়িয়েছে। পুরো ব্যাপারটা এমন ভাবে তুলে ধরা হচ্ছে স্কুলগুলোর ওপর দোষারোপ করা হচ্ছে। সিবিএসই স্কুলের অধ্যক্ষ দের মঞ্চ সহোদয় স্কুলস-এর ব্যানারে রাজ্য প্রশাসনের কাছে এই বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে।