বাঙালির পার্টি নয় বিজেপি, অভিযোগের জবাব দিলীপের

0

রাজীব ঘোষ:- যারা বলে বিজেপি বাংলার পার্টি নয় তাদের বলছি, তোমাদের জন্মের আগে থেকে আমরা বাংলা ভাষার সেবা করে আসছি। বাংলার জন্য যদি কোনো রাজনৈতিক দল কাজ করে সেটা হচ্ছে শ্যামাপ্রসাদ এর জনসংঘ। এদিন রাজ্য বিজেপির দ্বিতীয় ভার্চুয়াল সভা হয়। দিল্লি থেকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির বক্তব্য রাখার কথা থাকলেও তিনি অনুপস্থিত ছিলেন।

 

কারণ এদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ক্যাবিনেট মন্ত্রীদের নিয়ে জরুরি বৈঠক ডাকেন। বিজেপির দিল্লির অফিসে বাংলার জন্য এই ভার্চুয়াল সভামঞ্চে প্রধান বক্তা ছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সাংসদ ভূপেন্দ্র যাদব, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী এবং সংসদ এস এস আলুওয়ালিয়া। রাজ্য বিজেপির ভার্চুয়াল সভা মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু, সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। সভায় ছিলেন রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত দলের কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়।

 

বিজেপির এই ভার্চুয়াল সভায় সাংসদ ভূপেন্দ্র যাদব বলেন, বাংলায় বদল এর সময় এসেছে। বাংলার উন্নয়ন করতে গেলে বিজেপিকে প্রয়োজন। সেই পরিবর্তন আসতে চলেছে। করোনা এবং আমপান পরবর্তী পরিস্থিতিতেও তৃণমূল কংগ্রেস রাজনীতি করছে। গরিব বিরোধী এই তৃণমূল সরকারকে সরিয়ে দেওয়ার সময় এসে গেছে। রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, পশ্চিমবাংলায় সীমানা পেরিয়ে অনুপ্রবেশকারীরা ঢুকছে। পশ্চিমবঙ্গের সীমানা সুরক্ষিত নয়। রাজ্যজুড়ে উগ্রপন্থী কার্যকলাপ বাড়ছে।

 

বেআইনিভাবে অনুপ্রবেশকারী, রোহিঙ্গারা রাজ্যের সীমান্ত দিয়ে ঢুকছে। সভায় দিলীপ ঘোষের দাবি, 2021 সালে বিজেপির হাত ধরে রাজ্যের পরিবর্তন হবে। পাশাপাশি, বিজেপির রাজ্য দপ্তরের এই ভার্চুয়াল সভা থেকে অনুপ্রবেশ ইস্যুতে সমস্ত বিজেপি নেতারা সরব হয়েছেন। প্রসঙ্গত, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে বিজেপি যে বাঙালির পার্টি নয় সেই বিষয়ে একাধিকবার অভিযোগ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির গরিব কল্যাণ রোজগার যোজনা প্রকল্পে বাংলার নাম নেই।

 

সেই প্রসঙ্গে রাজ্যের তৃণমূল, সিপিএম এবং কংগ্রেস সকলে মিলিতভাবে কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে। বাংলাকে কেন্দ্র বঞ্চনা করছে, দীর্ঘদিন ধরেই এই অভিযোগ করছে তৃণমূল কংগ্রেস। ফলে রাজ্য বিজেপির পক্ষ থেকে এদিনের ভার্চুয়াল সভায় বিজেপি বাঙ্গালীর পার্টি নয়, এই তকমা ঘোচানোর জন্য ময়দানে নামলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।