মানুষ অধিকার হারাচ্ছে, বুদ্ধিজীবীরা প্রতিবাদ করুন! আর্জি জানান ভারতী ঘোষ

0

রাজীব ঘোষ:- প্রতিদিন দেখা যাচ্ছে রাজ্যে রেশন এর দোকান থেকে চাল চুরি হচ্ছে।বিলি বন্টন ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। করোনা চিকিৎসার জন্য রোগীরা রাজ্যে সঠিক চিকিৎসা পাচ্ছেন না। ভেলোর থেকে চিকিৎসা করিয়ে ফিরে আসার সময় উড়িষ্যা বাংলা সীমান্তে রোগীর আত্মীয়দের পাঁচ দিন ধরে আটকে রাখা হয়েছিল।

কয়েকদিন পরে সংবাদমাধ্যমে সেটা নিয়ে সমালোচনা হওয়ার পর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে তাদের বাড়ি পাঠানো হয়। এক ভিডিও বার্তায় এই কথা বলেছেন রাজ্য বিজেপির সহ-সভাপতি ভারতী ঘোষ।

তিনি আরো বলেছেন, দিল্লির এইমস হাসপাতাল থেকে এক মহিলা তার ব্রেইন ক্যান্সারে আক্রান্ত স্বামীর মৃতদেহ নিয়ে ফেরার পর ঝাড়খন্ড বাংলা সীমান্তে আটকে পড়েন। তার কাছে করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট এবং অফিশিয়াল পাস থাকা সত্ত্বেও রাজ্যের পুলিশ সীমান্তে ৬ ঘণ্টা আটকে রাখে। বাংলার মানুষ রাজ্যে কাজ না পেয়ে বাংলার বাইরে কাজের খোঁজে গিয়েছেন। সেই হাজার হাজার মানুষ বাড়ি ফিরতে চাইছেন অথচ রাজ্য সরকার তাদের ফেরানোর ব্যবস্থা করছে না। দিনের পর দিন এই ধরনের ঘটনা ঘটে চলায় বাংলার মানুষ আজ অসহায়।

এরপর বিজেপির সহ-সভাপতি ভারতী ঘোষ প্রশ্ন তোলেন, বাংলায় পরিবর্তন চেয়েছিল মানুষ ঠিকই কিন্তু এই পরিবর্তন চেয়েছিল কি? এই অপশাসন দেখার জন্য কি বাংলার মানুষ এই সরকারকে এনেছিলেন? সরকারের এই কার্যকলাপের প্রতিবাদ কেউ করছেন না। অপ শাসন চললেও বুদ্ধিজীবীরা এতদিন মুখ খুলেছেন। কিন্তু এখন তারা মুখ খুলছেন না। তাদের কাছে অনুরোধ, সাধারণ মানুষ যেভাবে অধিকার হারাচ্ছে আপনারা তার প্রতিবাদ করুন। রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতিতে বুদ্ধিজীবীদের কাছে মুখ খোলার আর্জি জানালেন রাজ্য বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ।