ভাই তারু সিং তার চুলের পরিবর্তে মাথার খুলি দিয়ে ছিল খানদের ,শেষ নিঃশ্বাসের আগ পর্যন্ত ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেননি

0

সমাচার ডেস্ক: আজ শিখের গর্ব ভাই তারু সিং (Bhai Taru Singh)।গুরু গোবিন্দ জী বলেছিলেন যে শিখের প্রথম পরিচয় তাঁর চুল। সুতরাং শিখদের চুল কাটা উচিত নয়। প্রতিটি শিখ দীর্ঘদিন ধরেই গুরু গোবিন্দ কথা অনুসরণ করে আসছেন।

তবে ভাই তারু সিংহ ইতিহাসের পাতায় লিপিবদ্ধ রয়েছেন । ভাই তারু সিং লাহোরের গভর্নর জাকারিয়া খান বাহাদুরের নির্দেশে চুল মুছে ফেলেননি, সেই সময় শিখদের উপর অত্যাচার চালিয়েছিলেন জাকারিয়া খান।কিন্তু যখন চাপ সৃষ্টি করা হয়েছিল, তখন চুলগুলি কেটে ফেলার পরিবর্তে পুরো মাথার সম্পূর্ণ খুলি তাঁর হাতে তুলে দেয়।

এবং ভাই তারু সিং (Bhai Taru Singh) বলেন,” খুশি হবেন না, আমি আপনাকে জুতো দিয়ে মারব এবং প্রথমে আপনাকে নরকে পাঠাব এবং তারপরে দরগায় যাব।”

শিখ ধর্মের ইতিহাসে একটি উজ্জ্বল মুখ ‘ভাই তারু সিংহ’ ।আজও কোনও শিখই তাঁর শাহাদাত ভুলতে পারে না, এ কারণেই শিখরা তাকে তার নাম তারু সিংয়ের সামনে ভাই হিসাবে রেখে তাকে সম্মান করে এবং তাকে ভাই সাহেবও বলা হয়।

১৭২০ সালের ৬ অক্টোবর অমৃতসর (Amritsar) জন্মগ্রহণ করেছিল। শহীদ হয়েছিলেন ১৯৪৫ সালের ১ লা জুলাই। মাত্র ২৫ বছর বয়সে শিখ ধর্মের রক্ষার জন্য শহীদ হয়েছে ছিল ভাই তারু সিং।

ভাই তারু সিংহের বিবরণ সেই সময়ের সাথে সম্পর্কিত, যখন পাঞ্জাবের অমৃতসরে মুঘল শাসন শুরু হয়েছিল এবং লাহোরের রাজ্যপাল ছিলেন জাকারিয়া খান।

মোঘলরা আরও বেশি সংখ্যক লোককে ইসলাম গ্রহণের মাধ্যমে তাদের শক্তি বাড়াতে চেয়েছিল। তবে ভাই তারু সিং এই নৃশংসতা মেনে নেন নি। তিনি পাহুলা গ্রামে তাঁর মায়ের সাথে থাকতেন এবং শিখ ধর্ম তাঁর কাছে সমস্ত কিছুই ছিল।