বাঙালির প্রাণের উৎসবে বৃষ্টির আশঙ্কা! কি বলল আবহাওয়া দপ্তর? 

0

অমিত সরকার: গত কয়েক বছরের পুজোয় বৃষ্টির হিসেব কষলে দেখা যায়, গত বছর পুজোয় সব থেকে বেশি বৃষ্টি হয়েছিল। আর ২০১৩-তে নবমী-দশমী ভাসিয়েছিল ঘূর্ণিঝড় পিলিন। তাই মৌসুমী বায়ুর সঙ্গে নিম্নচাপ হাজিরা দিলেই পুজোর আবহাওয়া বদলে যেতে পারে নিমেষেই।

দুর্গাপুজো শুরু হচ্ছে ৪ অক্টোবর। ওই দিন পঞ্চমী। দশমী ৮ অক্টোবর। এই সময়ে ঝেঁপে বৃষ্টি যে হবে না, তা বুক ঠুকে বলতে পারছে না

তবে এবার বৃষ্টির দাপট কী রকম থাকবে সেটা নির্ভর করবে ওই সময়ে বঙ্গোপসাগরের পরিস্থিতির ওপরে। অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ-ঘূর্ণিঝড় তৈরি হওয়ার সময়।

অক্টোবরে প্রথম সপ্তাহে কোনো নিম্নচাপ তৈরি হবে কি না, তার পূর্বাভাস এত তাড়াতাড়ি কোনো ভাবেই দেওয়া সম্ভব নয়। তা বলে পুজোয় বৃষ্টি ভাসিয়ে দেবে তেমন আশঙ্কা এখনই করার কোনো দরকার নেই। পুজোয় আবহাওয়া কেমন থাকবে মহালয়া থেকে তার আন্দাজ পাওয়া যাবে।

সাধারণত রাজ্য থেকে বর্ষা বিদায় নেয় ৮ অক্টোবর। কিন্তু কয়েকবছর ধরে দেখা যাচ্ছে বর্ষা বিদায় নেওয়ার সময়টা হয়ে যাচ্ছে অক্টোবরের মাঝামাঝি।

দুপুরে কিংবা বিকেলে আকাশ কালো করে এসে বৃষ্টি। পুজোর বাজারে বেরিয়ে কেনাকাটা যতটাই হোক কাকভেজা হয়ে ফিরছেন অনেকেই। সকলের মনেই প্রশ্ন পুজো তো এসে গেল, বৃষ্টি আর কতদিন? আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে, রাজ্য থেকে বর্ষা সাধারণত বিদায় নেয় ৮ থেকে ১০ অক্টোবর। তার পরেই বৃষ্টি চলতে থাকে। এবার সেই তারিখের অনেক আগেই পুজো। তাই পুজোর সময় দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ু রাজ্যে হাজির থাকবে এটাই স্বাভাবিক।