লকডাউনে বন্ধুর বাড়িতে আটকে আছে ছেলে, উদ্ধার করতে স্কুটিতে ১,৪০০ কিমি পাড়ি দিলেন মা

0

সমাচার ডেস্ক: বিশ্বের একাধিক দেশে এখন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত । এই মহামারীর সঙ্গে মোকাবিলার জন্য দেশজুড়ে লকডাউন। লকডাউনের আগে বন্ধুর বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র তেলাঙ্গনার বোধান শহরের বাসিন্দা মহম্মদ নিজামউদ্দিন। কিন্তু তারপর থেকেই শুরু হয় দেশজুড়ে লকডাউন । তাই শেষ পর্যন্ত নিজের বাড়িতে ফেরা হয়নি । শেষ পর্যন্ত ছেলেকে উদ্ধার করতে স্কুটিতে ১,৪০০ কিমি পাড়ি দিলেন মা।

যদিও ২৩ মার্চ ফেরার রেলটিকিট কাটা থাকলেও সেদিন দেশজুড়ে লকডাউন জারি হওয়ায় বন্ধুর বাড়িতেই আটকে পড়েন।তার পর থেকেই নিজামউদ্দিনের মা স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা রাজিয়া বেগম (৫০)।

ছেলের সঙ্গে ফোনে সঙ্গে কথোপকথনে জানতে পারেন চেষ্টা করেও তেলঙ্গানা ফিরতে পারছেন না । শেষ পর্যন্ত পুলিশের দারস্থ হয় ওই শিক্ষিকা ।পুলিশকর্তাস তাঁকে অনেক বুঝিয়েপুলিশ সহকারী প্রধানের অনুমতিপত্র। পরিবারের কাউকে কিছু না জানিয়ে ১ ৪০০ কিমি পথ পাড়ি দিয়ে ছেলেকে উদ্ধার করে বাড়ি ফিরিয়ে আনবেন।

পরিবারের কাউকে কিছু না জানিয়ে নিজের স্কুটি নিয়ে বেরিয়ে পড়েন প্রধান শিক্ষিকা। ঠিক করেন ১,৪০০ কিমি পথ পাড়ি দিয়ে ছেলেকে উদ্ধার করে বাড়ি ফিরিয়ে আনবেন। সঙ্গে নেন পুলিশ সহকারী প্রধানের অনুমতিপত্র।

গত ৬ এপ্রিল ভোরে রওনা দেন রাজিয়া। পথে নানান জায়গায় তাঁকে পুলিশের ব্যারিকেডে থামতে হলেও অনুমতিপত্র দেখিয়ে ছাড়া পান রাজিয়া।৭ এপ্রিলই দুপুরে ফের ছেলেকে নিয়ে নেলোর ছাড়েন রাজিয়া। ৮ এপ্রিল সকালে পৌঁছে যান নিজের বাড়ি। দীর্ঘ পথ স্কুটি চালিয়ে প্রচণ্ড ক্লান্ত মা

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস